Create an Account

Shopping cart

Close

No products in the cart.

গরমে হিট স্ট্রোক প্রতিরোধে পাঁচ পরামর্শ

March 7, 2018
Posted by

হিটস্ট্রোক একটি জটিল স্বাস্থ্যগত সমস্যা। এটি গরমের সময় হয়। খুব গরমে তাপ নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা অকার্যকর হয়ে দেহের তাপমাত্রা ১০৫ ডিগ্রি ফারেনহাইটের ওপরে চলে গেলে একে হিট স্ট্রোক বলে।

মাথাব্যথা, মাথাঘোরা, দ্রুত শ্বাসপ্রশ্বাস, পর্যাপ্ত ঘাম না হওয়া, বমি ও বমি বমি ভাব, হাঁটতে অসুবিধা, দ্রুত হৃদস্পন্দন ইত্যাদি হিট স্ট্রোকের লক্ষণ। হিট স্ট্রোক প্রতিরোধে কিছু বিষয় জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

১. পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করা

হিট স্ট্রোক প্রতিরোধে প্রতিদিন অন্তত দুই লিটার পানি পান করুন। এ ছাড়া জুস, ডাবের পানি, লেবু পানি ইত্যাদি পানীয় জাতীয় খাবার খাদ্যতালিকায় রাখুন।

এসব খাবার শরীরের ইলেকট্রোলাইটের ভারসাম্য বজায় রাখে। এতে অবসন্নভাব, বমি, ক্লান্তি প্রতিরোধ হয়।

২.  সহজপাচ্য খাবার খান

গরমের সময় খাদ্যতালিকায় সহজপাচ্য খাবার রাখুন। অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, চর্বি জাতীয় খাবার শরীরের তাপ বাড়ায়। তাই এমন খাবার খান যেগুলো শরীরকে ঠাণ্ডা রাখে। এ সময় খাদ্য তালিকায় সবজি ও মৌসুমি ফল বেশি করে রাখুন।

৩. পকেটের মধ্যে পেঁয়াজ রাখুন

কথাটি শুনে হাসি পাচ্ছে? আসলে মজার বিষয় হলো, পকেটের মধ্যে পেঁয়াজ রাখলে এটি শরীরের তাপ শোষণ করতে সাহায্য করে এবং শরীরের তাপামাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখে। এটি আপনাকে দুর্বিষহ গরম থেকে রক্ষা করবে।

৪. পেঁয়াজ খান

গরমের সঙ্গে লড়াই করতে পেঁয়াজ খুব উপকারী খাবার। পেঁয়াজ, বিশেষ করে লাল পেঁয়াজের মধ্যে কুয়ারসেটিন নামক উপাদান রয়েছে। এটি আমাদের শরীরকে প্রশমিত করে এবং হিট স্ট্রোক প্রতিরোধে সাহায্য করে।

৫. হালকা রঙের পোশাক পরুন

অতিরিক্ত গরমের সময় কালো বা খুব গাঢ় রঙের পোশাক না পরাই  ভালো।  কারণ, গাঢ় রঙের পোশাক তাপ বেশি শোষণ করে, আর হালকা রঙের পোশাক তাপ প্রতিফল করতে সাহায্য করে। তাই এ সময়  হালকা রঙের, সুতি কাপড়ের পোশাক পরুন। এতে শরীর ঠাণ্ডা থাকবে।

Continue Reading 1 Comment

Shop Customization Settings

March 7, 2018
Posted by

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. In sed vulputate massa. Fusce ante magna, iaculis ut purus ut, facilisis ultrices nibh. Quisque commodo nunc eget tortor dapibus, et tristique magna convallis. Phasellus egestas nunc eu venenatis vehicula. Phasellus et magna nulla. Proin ante nunc, mollis a lectus ac, volutpat placerat ante. Vestibulum sit amet magna sit amet nunc faucibus mollis. Aliquam vel lacinia purus, id tristique ipsum. Quisque vitae nibh ut libero vulputate ornare quis in risus. Nam sodales justo orci, a bibendum risus tincidunt id. Etiam hendrerit, metus in volutpat tempus.

Neque libero viverra lorem, ac tristique orci augue eu metus. Aenean elementum nisi vitae justo adipiscing gravida sit amet et risus. Suspendisse dapibus elementum quam, vel semper mi tempus ac.

Continue Reading No Comments

WooCommerce support

March 7, 2018
Posted by

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. In sed vulputate massa. Fusce ante magna, iaculis ut purus ut, facilisis ultrices nibh. Quisque commodo nunc eget tortor dapibus, et tristique magna convallis. Phasellus egestas nunc eu venenatis vehicula. Phasellus et magna nulla. Proin ante nunc, mollis a lectus ac, volutpat placerat ante. Vestibulum sit amet magna sit amet nunc faucibus mollis. Aliquam vel lacinia purus, id tristique ipsum. Quisque vitae nibh ut libero vulputate ornare quis in risus. Nam sodales justo orci, a bibendum risus tincidunt id. Etiam hendrerit, metus in volutpat tempus.

Neque libero viverra lorem, ac tristique orci augue eu metus. Aenean elementum nisi vitae justo adipiscing gravida sit amet et risus. Suspendisse dapibus elementum quam, vel semper mi tempus ac.

Continue Reading 1 Comment

কোলেস্টেরল বাড়ার ঝুঁকি কাদের বেশি?

March 7, 2018
Posted by

কোলেস্টেরল একটি চর্বি জাতীয় উপাদান। রক্তে বাজে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে গেলে রক্তনালিতে ব্লক হয়। এতে উচ্চ রক্তচাপ, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে।

রক্তে বাজে কোলেস্টেরল বাড়ার প্রবণতা কাদের বেশি, এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৪২৭তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. মো. তৌফিকুর রহমান। বর্তমানে তিনি কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে কার্ডিওলজি বিভাগে বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন :  কোলেস্টেরল বাড়ার ক্ষেত্রে ঝুঁকিপূর্ণ কারা ?

উত্তর : যাদের পারিবারিক ইতিহাস রয়েছে, যাদের পরিবারে কোলেস্টেরল হওয়ার ঝুঁকি বেশি রয়েছে, তাদের এই সমস্যা হওয়ার ঝুঁকি বেশি। আরেকটি বিষয় রয়েছে। অনেকের দেখবেন, চোখের কোণায় সাদা সাদা দেখা যায়। তাদের ক্ষেত্রে দেখতে হবে কোলেস্টেরল বেশি রয়েছে কি না। আবার যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে, তাদের কিন্তু শরীরে ট্রাইগ্লিসারাইড বেশি হচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে একটু বলে রাখি, রক্তে কোলেস্টেরল হলো চার ধরনের। একটি হলো টোটাল কোলেস্টেরল, আরেকটিকে হলো, – লো ডেনসিটি লাইপোপ্রোটিন বা এলডিএল (একে খারাপ কোলেস্টেরল বলা হয়), আরেকটি হলো, হাইডেনসিটি লাইপোপ্রোটিন বা এইচডিএল (একে ভালো কোলেস্টেরল বলা হয়)। চার নম্বর হলো, ট্রাইগ্লিসারাইড। এখন এই চারটি কোলেস্টেরলের মধ্যে তিনটি ক্ষতিকর। আরেকটি ভালো।

এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি খারাপ হলো এলডিএল। এর যদি মাত্রা বেশি থাকে, তাহলে চর পড়া বা ব্লক হওয়ার প্রবণতা বাড়ে।

এই এইচডিএল কী করে? রক্ত পরিষ্কার করে। এইচডিএল রক্ত থেকে বাজে কোলেস্টেরলটা শোষণ করে নিয়ে যায়।

Continue Reading 1 Comment

একটি পাতা কমাবে মানসিক চাপ, উদ্বেগ, উচ্চ রক্তচাপ

March 6, 2018
Posted by

তেজপাতাকে আশীর্বাদপুষ্ট পাতা বলা হয়। এই পাতা মানসিক চাপ, উচ্চ রক্তচাপ, উদ্বেগ কমাতে উপকারী।

আমাদের গ্যাসট্রোইনটেসটাইনাল পদ্ধতিতে তেজপাতা খুব শক্তিশালী প্রভাব ফেলে। এই পাতা শরীরের বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। তেজপাতার মধ্যে রয়েছে মাইক্রেন ও ইউজেনল। এসব উপাদান প্রদাহরোধী হিসেবে কাজ করে। এটি শ্বাসতন্ত্রের সমস্যা কমাতেও উপকারী।

সুস্বাস্থ্যের জন্য তেজপাতার পানীয় তৈরির প্রণালি জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট ডেমিক।

একটি পাত্রের মধ্যে দুই কাপ পানি নিন। তিন মিনিট সিদ্ধ করুন। এবার চুলা থেকে পাত্রটি নামিয়ে গরম পানির মধ্যে তিন থেকে চারটি তেজপাতা পাঁচ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এবার গরম পানি থেকে পাতাগুলো সরিয়ে এর মধ্যে সামান্য মধু মেশান। এরপর এই পানি পান করুন।

মানসিক চাপ কমাতে তেজপাতার ব্যবহার

মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কমাতে সবচেয়ে ভালো পদ্ধতি হলো তেজপাতা পুড়িয়ে এর গন্ধ নেওয়া। তেজপাতার মধ্যে রয়েছে পাইনেন, চাইনেওল ও লাইনেলল। এগুলো মানসিক চাপ কমাতে উপকারী।

ঘরের দরজা বন্ধ করে দুই থেকে তিনটি তেজপাতা পোড়ান এবং এর গন্ধ নিন। এই গন্ধ মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে।

Continue Reading No Comments
Back to Top

Welcome to Cardiocare Pharmacy!

Enter your email and we will send you a coupon with 50% off your next order!